২১শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ৮:৪০

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের নতুন মন্ত্রী তাজুল ইসলাম ও প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য

বিশেষ প্রতিবেদকঃ বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভায় কুমিল্লার আওয়ামী লীগ নেতা জনাব তাজুল ইসলাম স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের নতুন মন্ত্রী ও স্বপন ভট্টাচার্য প্রতিমন্ত্রী হিসেবে যোগদান করেছেন।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে প্রথম কর্মদিবসে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। এসময় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জনাব স্বপন ভট্টাচার্য, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব এস এম গোলাম ফারুক এবং পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব মো. কামাল উদ্দিন তালুকদারসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও দপ্তর-সংস্থার প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জনাব তাজুল ইসলাম কুমিল্লা-০৯ (লাকসাম-মনোহরগঞ্জ) আসন থেকে চতুর্থবারের মতো জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। গত সংসদেও তিনি বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতিসহ সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন ও যশোর-৫ আসন থেকে জনাব স্বপন ভট্টাচার্য জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

মন্ত্রী হওয়ার আমন্ত্রণ পাওয়ার পর জনাব তাজুল ইসলাম বলেন, “নেত্রী আমাকে যে দায়িত্ব প্রদান করবেন আমি তা সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করব। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষিত প্রতিটি গ্রাম হবে শহর- এ লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক তা বাস্তবায়নে কাজ করব।”

কুমিল্লার লাকসামের ছেলে জনাব তাজুল ইসলাম স্কুল-কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যবস্থাপনা বিভাগে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করেন। তিনি বিয়েও করেন চট্টগ্রামে। ওই শহরেই গার্মেন্ট ব্যবসায় হাত দিয়ে সফলতার দেখা পান তাজুল।

তার মালিকানাধীন ফেবিয়ান গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের অধীনে ২০টির মতো পোশাক কারখানা রয়েছে। বেসরকারি যমুনা ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে আছেন তাজুল। এছাড়া ‘দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ’ নামে একটি পত্রিকার প্রকাশক তিনি।

জনাব তাজুল ইসলামের চার সন্তানের মধ্যে দুই ছেলে পারিবারিক ব্যবসা দেখাশোনা করেন। মেয়েদের মধ্যে একজন ব্যারিস্টার, আর অন্যজন আমেরিকায় লেখাপড়া করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*